অসহায়ত্বের বর্ণনা দিলেন অস্ট্রেলিয়ান ক্যাপ্টেন ম্যাথু ওয়েড

0
294

যে কোন পর্যায়ের ক্রিকেটের জন্যই এই ধরনের ফলাফল অনেক বেশি চিন্তার। ৫ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন সবসময় শাসন করে এসেছে বিশ্বের সব দেশকে, বিশ্বের সব কন্ডিশনে। সময়ের বাক বদলে সেই স্রোতের পরিবর্তন ঘটেছে। পন্টিংদের পরের অস্ট্রেলিয়া দল সেভাবে নিজেদের কন্ডিশন বাদে সফল হতে পারেনি।

বাংলাদেশ সফরে এসে ৪-১ এ সিরিজ হারার পর অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড নিজেদের সংকীর্নতার কথা লুকোলেন না। ৬২ রানের অলআউট হবার পর অস্ট্রেলিয়ার দলের জন্য এটা অনেক নেতিবাচক বলেই মনে করেন ম্যাথু ওয়েড।

ম্যাচ শেষে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড বর্ণনা করেন কতটা কঠিন ছিল বাংলাদেশের কন্ডিশনে খেলা।

তিনি বলেন, “ইতিবাচকভাবে নেবার মত তেমন কিছুই নেই, যেভাবে আমরা প্রতিটা ম্যাচ হেরেছি বিশেষ করে শেষ ম্যাচের ফলাফল যেটা হয়েছে সেটা অস্ট্রেলিয়া দলের জন্য কখনোই ভালো হতে পারে না।”

“বাংলাদেশ নিজেদের মাটিতে অনেক বেশি শক্তিশালী দল। তাদের স্পিনাররা দারুণ বল করেছে। বাস্তবতা হলো আমাদের স্পিনের বিপক্ষে অনেক উন্নতি করতে হবে, আমাদের এই দলের অনেককে এরকম কন্ডিশনে রান করার উপায় খুঁজে বের করতে হবে।”
অস্ট্রেলিয়া দলে নতুন আসা তরুণদের খোঁজ দিচ্ছেন না ওয়েড বরং দোষ কাঁধে নিচ্ছেন নিজে সহ দলের আর সকল সিনিয়র ক্রিকেটারদের উপর। তিনি আরো বলেন, “আমি তরুণদের একটুও দোষ দিতে চাই না। আমার, মিচেল, মার্শ, ড্যানিয়েল ক্রিশ্চিয়ানের অভিজ্ঞতা অনেক। আমাদের ভালো করা উচিত ছিল।”

দলের সিনিয়রদের দ্বায়িত্ব কাঁধে নেওয়া উচিত ছিল বলে মনে করেন ম্যাথু ওয়েড।

“তরুণরা এখানে এই ধরনের কন্ডিশনে খেলার সুযোগ পেয়েছে। যদি তারা এটাকে শিক্ষা ভেবে থাকে আর নিজেকে আরো ভালো ক্রিকেটার হিসেবে গড়ে তুলতে পারে তা অন্তত কিছু কাজে দিবে এবং সেটাই উচিত।”
দীর্ঘ সময়ে বায়ো বাবলে থাকার একটা বাজে প্রভাব দলের মধ্যে আছে বলে মনে করেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড।