‘কলকাতার আগ্রহ, বাংলাদেশের না’

0
1557

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ২০২০ সালের আইপিএল-এর জন্য মুস্তাফিজুর রহমানকে এনওসি দিতে অস্বীকার করেছে। ক্রিকেট অপারেশন চেয়ারম্যান আকরাম খান বলেছেন অক্টোবরে এবং নভেম্বর মাসে শ্রীলঙ্কা সফরের কারনে মুস্তাফিজুর রহমানকে অনুমতি দেওয়া হয়নি।

কলকাতা নাইট রাইডার্স হ্যারি গুর্নির বদলে মুস্তাফিজুর রহমানকে দলে নিতে আগ্রহী ছিল।

মোস্তাফিজুর রহমান বাংলাদেশ দলের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য দীর্ঘদিন পর বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরছে বাংলাদেশ তাই সেখানে মুস্তাফিজুর রহমানের উপস্থিত অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ‌ এই প্রেক্ষাপট বিচারে বিসিবি মুস্তাফিজুর রহমানকে এনওসি দিবে না এটা সহজেই অনুমেয়।

মুস্তাফিজুর অবশ্য ২০১৮ সালের মার্চ থেকে বাংলাদেশের টেস্ট দলে খেলছেন না। ২০১৯ বিশ্বকাপে তিনি ২০ উইকেট নিয়েছিলেন, এর পর থেকে তিনি বাংলাদেশের হয়ে কেবল ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি খেলেছেন।

তিনি সর্বশেষ মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে ২০১৮ সালে আইপিএল খেলেছিলেন। সেই মৌসুমে সাতটি ম্যাচে তিনি ৩২.৮৫ গড়ে এবং ৮.৩৬ ইকোনমি রেটে সাত উইকেট নিয়েছিলেন।

অবশ্য সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে মুস্তাফিজুর অনেক বেশি সফল্ ছিলেন। তিনি ২৯২৬ ও ২০১৭ সালে হায়দারাবাদের হয়ে খেলেছেন, যদিও তিনি ২০১৭ সালে মাত্র একটি খেলায় অংশ নিয়েছিলেন। সানরাইজের এর হয়ে তিনি ১৭ ম্যাচে ৩৬.১৬ গড়ে এবং ৭.১৪ ইকোনমি রেটে ১৭ উইকেট নিয়েছিলেন। তার আইপিএল পরিসংখ্যান ২০১৭ সালের পারফরমেন্সের  জন্য কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, ঐ বছর  তিনি এক ম্যাচে ২.৪ ওভারে বলিং করে ৩৪ রানের বিনিময়ে উইকেট শূন্য থাকেন।

আইপিএল খেলে ২০১৮ সালে তিনি ইনজুরি নিয়ে দেশে ফিরেন। তার পরে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেছিলেন যে তাঁকে আর কোনো বিদেশী লিগে অংশ নেওয়ার জন্য এনওসি দেওয়া হবে না।