জিম্বাবুয়ে থেকে বাংলাদেশের কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর সাক্ষাৎকার। 

0
1689

কালই হারারেতে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে মাঠে নামবে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। সেই টেস্টকে সামনে রেখে বিসিবির এক ভিডিও বার্তায় দলের সার্বিক পরিকল্পনা এবং নানান বিষয়ে কথা বলেছেন টাইগারদের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

পুরো সাক্ষাৎকারের বিস্তারিত : হারারেতে সাফল্য পাওয়ার মূল মন্ত্র ধৈর্য “আপনি যখন হারারেতে খেলবেন তখন ধৈর্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমি এখানে বেশ কয়েকবার এসেছি এবং এখানের স্কোরিং রেট অনেক বেশি। আপনি ব্যাটিং করেন কিংবা বোলিং সাফল্য পাওয়ার জন্য আপনাকে লম্বা সময় অপেক্ষা করতে হবে। এটা এমন কেনো ভেন্যু নয় যে এইখানে আপনি খুব সহজেই ৩৫০ রান করবেন। এখানে বেশ গরম তাই উইকেটে টিকে থাকার লড়াই করতে হবে ধৈর্য সহকারে বোলিং এর চাপটা লম্বা সময় ধরে মানিয়ে নিতে হবে। তবে তারা (টাইগাররা) এখন ও পর্যন্ত খুব বিচক্ষণ ক্রিকেট খেলছে। এখন আমরা দুইদিন বিশ্রাম নিবো।

সুযোগ কাজে লাগানো সুনিশ্চিত করতে হবে: আমাদের নিশ্চিত করতে হবে আমরা যেনো ধৈর্য ধরে রাখতে পারি, শৃঙ্খলাবদ্ধ থাকতে পারি এবং প্রতিটা সুযোগ যেনো কাজে লাগাতে পারি ঠান্ডা মাথায়। কারণ এই উইকেটে লম্বা সময় ধরে কোনো সুযোগ নাও আসতে পারে, তাই আপনাকে সুনিশ্চিত করতে হবে যেনো কোনো সুযোগ আসলে তা হাতছাড়া না হয়।

পেসারদের উন্নতিতে বেশ খুশি টাইগার কোচ: আমি সবসময় যেটা বলছি, পেসারদের উন্নতি নিয়ে আমি বেশ খুশি। তারা কঠোর পরিশ্রম করেছে, তাদের অবশ্যই কিছু সাফল্য প্রাপ্য। তারা পরিশ্রম করতে পিছুপা হয় না কখনো। ফলাফল হয়তো সবসময় তাদের অনূকলে ছিলো না। কিন্তু তারা ওটিসনের সাথে দূর্দান্ত কাজ করেছে। তাদের হয়তো সংখ্যার দিক দিয়ে টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা খুব বেশি নেই, তবে তারা দক্ষতা অর্জনে কঠোর পরিশ্রম করেছে। গত ১৮ মাসে তারা তাদের বুঝার ক্ষমতা, দক্ষতা এবং সার্বিক বিষয়েই উন্নতি করেছে এবং সেদিন বেশি দূরে নয় যেদিন কঠিন পরিস্থিতিতে পেসাররা আমাদের টেস্ট জেতাবে।

ফলাফল গুরুত্বপূর্ণ তবে নিজেদের কার্যপ্রণালী অনুযায়ী এগোতে চান ডমিঙ্গো: দেখুন ফলাফল সবসময় ই গুরুত্বপূর্ণ। আমি মনে করি আমরা ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে হারলেও আমরা ভালো ক্রিকেট খেলেছিলাম। একই রকম শ্রীলংঙ্কা সিরিজেও বেশ কিছু ইতিবাচক দিক ছিলো। তাই দল হিসেবে আমরা প্রসেসে বেশ মনোযোগ দিচ্ছি। হ্যাঁ অবশ্যই আমাদের ফলাফল অনূকূলে আসা প্রয়োজন। সেজন্য আমদের কিছু টেস্ট জিততে হবে। তবে আমাদের এটাও নিশ্চিত করতে হবে আমাদের প্রস্তুতি এবং প্রসেস যেনো ঠিক থাকে।

টেস্ট খেলতে ক্ষুধার্ত সাকিব: সাকিব পুনরায় টেস্ট খেলতে ক্ষুধার্ত হয়ে আছে। বড় খেলোয়াড়দের জন্য এটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। তাদের এই মনোভাবটা থাকা জরুরি। তাকে দলে ফিরে পাওয়াটা দূর্দান্ত ব্যাপার। টিম কম্বিনেশন বেড়ে যায়। সে টপ সিক্সে ব্যাটিং করে আবার ফ্রন্টলাইন বোলারও। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রতিটি দলই এমন একজন খেলোয়াড় পেতে মুখিয়ে থাকে। সে এই সফরে এনার্জি ও ইতিবাচক মানসিকতা বয়ে এনেছে।

মুশফিক ফিট তবে তামিমকে নিয়ে সংশয়: মুশফিক অনেকটাই আত্নবিশ্বাসী সে খেলার মতো ফিট হয়ে উঠতে পারবে। তার পুর্নবাসন প্রক্রিয়াটা বেশ ভালো হয়েছে। সবকিছু ঠিকঠাক ভাবেই এগোচ্ছে। তবে তামিম এখনও শতভাগ নিশ্চিত না তাকে নিয়ে সংশয় রয়ে গেছে। তার খেলা নিয়ে অদূর ভবিষ্যৎে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

উইকেট দেখতে দেননি গ্রাউন্ডসম্যানরা: গ্রাউন্ডসম্যানরা দূর্ভাগ্যজনক ভাবে আমাদের এখনও উইকেট দেখতে দেয়নি। তবে আজ উইকেট দেখতে পাবো বলে আশা করি,তখন বোলিং আক্রমণ কেমন হবে সেটা নিয়ে আরো ধারণা পাবে আমরা।