জয়ের ধারা অব্যাহত রাখছে ক্রিকেট হকার লালমাই জোন

0
1489

আলমের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে আবার জয়ের দেখা পেল ক্রিকেট হকার লালমাই জোন, আজ তাদের প্রতিপক্ষ ছিল শক্তিশালী ছোট হাড়গিলা।

১৬ ওভারের খেলায় টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে ক্রিকেট হকার লালমাই জোনের ক্যাপ্টেন রায়হান।
অভিষিক্ত আশিকের সাথে দলের গোড়াপত্তন করতে নামেন সুমন, আশিম ৩ করে আউট হলেও সুমন দেখেশুনে খেলতে থাকেন। নাসিরের বলে ১৪ বলে ২২ করে সুমন আউট হওয়ার পর দলের বিপর্যয় নেমে আসে।টপ অর্ডারের আর কোন ব্যাটসম্যান দুই আংকের ঘর পূরণ করতে না পারলেও মিডল অর্ডার এ খেলতে নামা আলমের দ্রুততম ফিফটি উপর ভর করে ১৫৫ রানের বিশাল সংগ্রহ করে ক্রিকেট হকার লালমাই জোন। শেষ ওভারের প্রথম বলে সিক্স মেরে ২০ বলে দলের হয়ে ২য় ফিফটি ( ১ম ফিফটি ছিল মিলন মাহমুদের) এবং দ্রুততম হিসাবে ১ম ফিফটি করেন আলম।
আলম কে যোগ্য সঙ্গ দেন আরেক অভিষেক ব্যাটসম্যান তোফায়েল অপু এবং ইঞ্জুরি নিয়েও খেলতে নামা জহিরুল ইসলাম নয়ন স্যার। ৯ম এবং ১০ ম উইকেট জুটিতে যথাক্রমে ১৮ বলে ৩৯ এবং ৪০ রান সংগ্রহ হয়। শেষ ব্যাটসম্যান হিসাবে আউট হওয়ার আগে ৮ সিক্স এবং ৩ চারের সাহায্যে ২৪ বলে ৬৭ রান করেন আলম, জহির স্যার ১০০ স্ট্রাইক রেটে ৬ রান করে অপরাজিত থাকেন।
ছোট হাড়গিলার পক্ষে ৪ ওভারে ৪৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট লাভ করেন বিল্লাল এবং ৩.৫ বলে ২৯ রান দিয়ে ৪ উইকেট লাভ করেন নাসির।

১৫৬ রানের টার্গেটে ব্যাটিং করতে নেমে শাকির, তুশার ইমরান এর নিয়ন্ত্রিত বোলিং ১৬ ওভার শেষে ৮ উইকেটে ১০৩ রানের বেশি করতে পারে নাই ছোট হাড়গিলা। উল্লেখযোগ্য রান আসে ইউসুফের ব্যাট থেকে। ৩১ বলে ২৫ রান করেন ইউসুফ এবং শামিম।
শামিম ১২ বলে ৩ সিক্সের সাহায্যে করেন ২১ রান।
৪ এভারে ১২ রান দিয়ে ২ উইকেট লাভ করেন সাকির ৪ ওভারে ২৮ রান দিয়ে ২ উইকেট লাভ করেন তুষার । ২ ওভারে ১২ রান দিয়ে দুই উইকেট লাভ করেন অভিষিক্ত অপু।
বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ের জন্য ম্যান অব দ্যা ম্যাচ লাভ করেন আলম।

খেলা জয়পরাজয় হবেই,সেই জয় পরাজয় উপেক্ষা করে ক্রিকেটের বন্ধনে ক্রিকেট হকার্স এর সাথে থাকার জন্য ছোট হাড়গিলা কে জানাই অশেষ ধন্যবাদ।