পিএসজিকে দুর্বল করে দিয়েছে লিওলেন মেসি – ওয়েনের। লিওনেল মেসি, নেইমার আর কিলিয়ান এমবাপ্পে – এই তিনজনকে বলা হচ্ছিলো ‘স্বপ্নত্রয়ী’। বিশ্বসেরা আক্রমণভাগ একসঙ্গে মাঠে নামলে প্রতিপক্ষের অবস্থা কী হবে এতদিন ধরে আলোচনা ছিল এমনই। তবে কথায় আছে, ‘যত গর্জে তত বর্ষে না’। গতকাল চ্যাম্পিয়নস লিগে পিএসজির সঙ্গে ঠিক তাই হয়েছে। পিএসজির জার্সি গায়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসির অভিষেক হয়েছে কাল। দুর্বল ক্লাব ব্রুজকে শক্তিশালী পিএসজি উড়িয়ে দেবে, এমন প্রত্যাশাই ছিল। কিন্তু উল্টো নিজেদের মাঠে ব্রুজই খেলেছে দুর্দান্ত। তারকাখচিত পিএসজির সঙ্গে বুক চিতিয়ে লড়াই করেছে দলটি। তাদের সামনেই ম্যাচের অনেক সময়ই বর্ণহীন, নির্বিষ মনে হয়েছে স্বপ্নত্রয়ীদেরও। মঙ্গলবার রাতে মেসি-নেইমার-এমবাপে ত্রয়ী মিলেও হারাতে পারেননি বেলজিয়ান ক্লাব ব্রুজকে। ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের আসরে প্রথম ম্যাচে ১-১ সমতায় শেষ করে পিএসজি। পুরো ম্যাচে যেখানে দাপট দেখিয়েছে স্বাগতিক ব্রুজই। গোল পাননি আক্রমণভাগের দুই সঙ্গী নেইমার-এমবাপ্পেও। তবে, পিএসজির পয়েন্ট খোয়ানোর দায়টা মেসিকেই দিচ্ছেন সাবেক লিভারপুল তারকা মাইকেল ওয়েন। বিটি স্পোর্টসের সঙ্গে আলাপে ৪১ বছর বয়সী সাবেক ইংলিশ ফরোয়ার্ড বলেছেন, “আমরা হয়তো তাদের ব্যাপারে ঝাঁপিয়ে পড়ছি এটা ভেবে যে, এই পিএসজি যে ফরোয়ার্ডদের নিয়ে সাজানো, তারা নিজস্বতার দিক থেকে প্রত্যেকেই অসাধারণ খেলোয়াড়।” নেইমার-এমবাপে আগেও একসঙ্গে খেলেছেন। মেসির অন্তর্ভূক্তিকে ইঙ্গিত করে সাবেক ইংলিশ স্ট্রাইকার বলেন, “একসঙ্গে খেলে তারা বরং দলটিকে দুর্বল করে দিয়েছে মনে হচ্ছে। আমি বুঝি না, কিভাবে তারা এটার (চ্যাম্পিয়নস লিগ) ফেবারিট হয়। আমার মনে হয় ইংলিশ দলগুলো তাদের থেকে অনেক অনেক বেশি এগিয়ে।” যদিও ওয়েনের সঙ্গে কিছুটা দ্বিমত পোষণ করেন তাঁর এক সময়ের সতীর্থ রিও ফার্দিনান্দ। দুর্বল ক্লাব ব্রুজের বিপক্ষে হোঁচটের দায় মেসিদের ওপর চাপাতে নারাজ তিনি। ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট জিততে ফরাসিদের মধ্যমাঠ আরও শক্তিশালী করার পরামর্শ কিংবদন্তি এ ইংলিশ ডিফেন্ডারের। “বড় খেলোয়াড়দের কাজ (মেসি-নেইমার-এমবাপ্পেদের) গোল করা। বল বানিয়ে দেওয়ার দায়িত্ব মিডফিল্ডারদের। আমার মনে হয় মাঝমাঠে ওদের ঘাটতি আছে। ওরা বল বানিয়ে দিতে পারছে না। মাঝমাঠে সঠিক সমন্বয় গড়ে তোলাটা জরুরি

0
337

লিওনেল মেসি, নেইমার আর কিলিয়ান এমবাপ্পে – এই তিনজনকে বলা হচ্ছিলো ‘স্বপ্নত্রয়ী’। বিশ্বসেরা আক্রমণভাগ একসঙ্গে মাঠে নামলে প্রতিপক্ষের অবস্থা কী হবে এতদিন ধরে আলোচনা ছিল এমনই। তবে কথায় আছে, ‘যত গর্জে তত বর্ষে না’। গতকাল চ্যাম্পিয়নস লিগে পিএসজির সঙ্গে ঠিক তাই হয়েছে।

পিএসজির জার্সি গায়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসির অভিষেক হয়েছে কাল। দুর্বল ক্লাব ব্রুজকে শক্তিশালী পিএসজি উড়িয়ে দেবে, এমন প্রত্যাশাই ছিল। কিন্তু উল্টো নিজেদের মাঠে ব্রুজই খেলেছে দুর্দান্ত। তারকাখচিত পিএসজির সঙ্গে বুক চিতিয়ে লড়াই করেছে দলটি। তাদের সামনেই ম্যাচের অনেক সময়ই বর্ণহীন, নির্বিষ মনে হয়েছে স্বপ্নত্রয়ীদেরও।

মঙ্গলবার রাতে মেসি-নেইমার-এমবাপে ত্রয়ী মিলেও হারাতে পারেননি বেলজিয়ান ক্লাব ব্রুজকে। ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের আসরে প্রথম ম্যাচে ১-১ সমতায় শেষ করে পিএসজি। পুরো ম্যাচে যেখানে দাপট দেখিয়েছে স্বাগতিক ব্রুজই। গোল পাননি আক্রমণভাগের দুই সঙ্গী নেইমার-এমবাপ্পেও। তবে, পিএসজির পয়েন্ট খোয়ানোর দায়টা মেসিকেই দিচ্ছেন সাবেক লিভারপুল তারকা মাইকেল ওয়েন।

বিটি স্পোর্টসের সঙ্গে আলাপে ৪১ বছর বয়সী সাবেক ইংলিশ ফরোয়ার্ড বলেছেন, “আমরা হয়তো তাদের ব্যাপারে ঝাঁপিয়ে পড়ছি এটা ভেবে যে, এই পিএসজি যে ফরোয়ার্ডদের নিয়ে সাজানো, তারা নিজস্বতার দিক থেকে প্রত্যেকেই অসাধারণ খেলোয়াড়।”
নেইমার-এমবাপে আগেও একসঙ্গে খেলেছেন। মেসির অন্তর্ভূক্তিকে ইঙ্গিত করে সাবেক ইংলিশ স্ট্রাইকার বলেন, “একসঙ্গে খেলে তারা বরং দলটিকে দুর্বল করে দিয়েছে মনে হচ্ছে। আমি বুঝি না, কিভাবে তারা এটার (চ্যাম্পিয়নস লিগ) ফেবারিট হয়। আমার মনে হয় ইংলিশ দলগুলো তাদের থেকে অনেক অনেক বেশি এগিয়ে।”

যদিও ওয়েনের সঙ্গে কিছুটা দ্বিমত পোষণ করেন তাঁর এক সময়ের সতীর্থ রিও ফার্দিনান্দ। দুর্বল ক্লাব ব্রুজের বিপক্ষে হোঁচটের দায় মেসিদের ওপর চাপাতে নারাজ তিনি। ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট জিততে ফরাসিদের মধ্যমাঠ আরও শক্তিশালী করার পরামর্শ কিংবদন্তি এ ইংলিশ ডিফেন্ডারের।

“বড় খেলোয়াড়দের কাজ (মেসি-নেইমার-এমবাপ্পেদের) গোল করা। বল বানিয়ে দেওয়ার দায়িত্ব মিডফিল্ডারদের। আমার মনে হয় মাঝমাঠে ওদের ঘাটতি আছে। ওরা বল বানিয়ে দিতে পারছে না। মাঝমাঠে সঠিক সমন্বয় গড়ে তোলাটা জরুরি।”