প্রথমেই সাকিব, যে কোন প্রথমেরই আলাদা মর্যাদা আছে

0
413

টি-টোয়েন্টিতে সাকিব, টেস্ট ও ওয়ানডেতে কারা?

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে একটা জায়গায় চিরদিনই সাকিব আল হাসানের নাম প্রথম হয়ে থাকবে। সেটা হলো তিনি প্রথম ক্রিকেটার যিনি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ১ হাজার রান ও ১০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন, টেস্ট ও ওয়ানডেতে এই কৃতিত্ব জর্জ গিফেন ও ইয়ান বোথামের।

জর্জ গিফেন

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে অনেক আগেই হাজার রানের মাইলফলক পেরিয়ে গেছিলেন সাকিব আল হাসান, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পঞ্চম টি-টোয়েন্টিতে অ্যাশটন টার্নারকে আউট করে বিশ্বের দ্বিতীয় বোলার হিসেবে ১০০ উইকেট পূর্ণ করেন তিনি।

ইয়ান বোথাম

উইকেটের সেঞ্চুরিয়ান হিসেবে দ্বিতীয় হলেও একটা জায়গায় সাকিবই প্রথম ও এরকম ক্রিকেটার, সেটা হলো আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ১ হাজার রান ও ১০০ উইকেটের ডাবলসের রেকর্ড। ৮৪ টি-টোয়েন্টি খেলা সাকিবের রান বর্তমানে ১৭১৮ ও উইকেট সংখ্যা ১০২টি।

টি-টোয়েন্টিতে সাকিব প্রথম হলেও ক্রিকেটের বাকি দুই ফরমেটে এই রেকর্ডটি জর্জ গিফেন ও ইয়ান বোথামের। টেস্টে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ১ হাজার রান ও ১০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার জর্জ গিফেন। ওয়ানডেতে রেকর্ডটি কিংবদন্তি অলরাউন্ডার ইয়ান বোথামের।

টেস্টে ১ হাজার রান ও ১০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করার রেকর্ডটি ১০০ বছরেরও বেশি সময় আগের। ১৮৯৬ সালে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ১০০০ রান ও ১০০ উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব গড়েন জর্জ গিফেন। অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটে ১০ হাজার রানের পাশাপাশি ৫০০ উইকেটের রেকর্ড মারকুটে এই অলরাউন্ডারের দখলেই।

ইয়ান বোথামের রেকর্ডটিও প্রায় ৩৬ বছর আগের, ১৯৮৫ যালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিনি ওয়ানডেতে ১ হাজার রান ও ১০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেন। তবে এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম হলো ইয়ান বোথাম আগে রানের দিক থেকে ১ হাজার রান পূর্ণ করেন, এরপর তিনি যখন তার শততম উইকেট তুলে নেন সেই সময় তার নামের পাশে রানের সংখ্যা ৩ হাজার পেরিয়ে গেয়েছিলো।

টি-টোয়েন্টিতে আরও অনেকেই হাজার রান ও ১০০ উইকেটের মাইলফলক পেরিয়ে যাবেন, তবে কেউই সাকিবের রেকর্ড ভাঙতে পারবেন না। এখানেই অনন্য হয়ে থাকবেন সাকিব, যেমনটা আছেন শত বছর আগে রেকর্ড গড়া জর্জ গিফেন কিংবা ৩৬ বছর আগে কৃতিত্ব দেখান ইয়ান বোথাম।