বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে, ক্ষুব্ধ ভারতের সাবেকরা

0
910

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বল টেম্পারিংয়ের ঘটনা নতুন কিছু নয়। এই কেলেংকারী ঘটিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত হয়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভ স্মিথদের মতো তারকারা। এবার সেই বল বিকৃত করার মতো ঘৃণিত অভিযোগই উঠলো ইংলিশ ক্রিকেটারদের দিকে। ভারত-ইংল্যান্ডের লর্ডস টেস্টের চতুর্থ দিনে দুই ইংল্যান্ড ক্রিকেটার ররি বার্নস ও মার্ক উডদের দিকে উঠেছে এই সন্দেহের আঙুল।

তাঁদের বুটের স্পাইক দিয়ে মাঠের মধ্যেই বলকে মাটিতে ঘষতে দেখা যায়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই মূলত বিতর্কের ঝড়। সমর্থক থেকে বিশেষজ্ঞ অনেকেই ইংল্যান্ড দলের বিরুদ্ধে বল বিকৃতির অভিযোগ আনেন। যার মধ্যে আছেন বীরেন্দ্র শেবাগ, আকাশ চোপড়াদের মতো সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটাররা।

অভিযোগ তুলে শেবাগ লিখেছেন, “এটা কী হচ্ছে? এটা বল বিকৃত করার চেষ্টা নাকী কোভিড পরিস্থিতি সামাল দিতে ইংল্যান্ডের আরেকটি ভিন্ন কোনও উপায়।” বীরুর এক সময়ের ওপেনিং পার্টনার ও বর্তমান ধারাভাষ্যকার আকাশ চোপড়াও একই প্রশ্ন। তিনি সন্দেহ প্রকাশ করে লেখেন, “বল বিকৃতি?”

তবে অভিযোগটি যে যথার্ত নয় সে বিষয়ে মুখ খুলেছেন ইংলিশ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড। তিনি লিখেছেন, “বলের কোন ক্ষতি হয়েছে কিনা তার ওপর পুরো প্রক্রিয়াটি আসলে নির্ভর করে। বল গ্যালারিতে গেলেও একই নিয়ম প্রযোজ্য। যদি বলের কিছু না হয় (আকৃতির দিক দিয়ে পরিবর্তন), তব বদলের দরকার কী?”

তবে বিষয়টি খুব একটি আমলে নিচ্ছেন না ভারতীয় ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাথোড়। চতুর্থ দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এই কোচ জানান, বিষয়টি অনিচ্ছাকৃত ঘটতে পারে।

তিনি বলেন, “আমার এমন কিছু মনে হয়নি। আমারা বাইরে (ব্যালকানিতে) বসে ছিলাম, তাই ওই রিপ্লেগুলি আমরা দেখিনি। পরবর্তী সময়ে ঘটনাটি দেখার পর ওটাকে অনিচ্ছাকৃত বলেই মনে হয়েছে। ওটা স্রেফ একটা দুর্ঘটনা এবং আমরা ওটা নিয়ে খুব বেশি মাথা ঘামাতে চাই না।”

ব্রড-রাথোড়রা বিষয়টি নিয়ে নির্লিপ্ত হলেও নেটিজেনরা থেমে নেই। বিষয়টি নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ চলছেই। ম্যাচ রেফারি আদৌ এর বিরুদ্ধে কোন ব্যাবস্থা নেন কিনা, এখন সেটাই দেখার বিষয়।