বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা টেস্ট সিরিজ নিয়ে অনিশ্চয়তা

0
1274

তিন টেস্টের সিরিজ খেরার জন্য আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্য যাত্রা করার কথা। কিন্তু বর্তমানে শ্রীলঙ্কার জৈব সুরক্ষার পরিকল্পন এবং অফিসিয়াল ভ্রমণ পরিকল্পনার সমন্বয়ে শংঙ্কা দেখা দেবার কারণে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা  সিরিজের বাস্তবায়ন নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর, যা জুলাই-আগস্টে নির্ধারিত ছিল, কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে স্থগিত করা হয়েছিল। ২৪ শে অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া তিন টেস্ট সিরিজের বর্তমান পরিকল্পনা অনুসারে বাংলাদেশ  সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে শ্রীলঙ্কা ভ্রমণ করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শ্রীলঙ্কার জাতীয় স্বাস্থ্য সুরক্ষার নিয়ম অনুযায়ী যে কোন পর্যটক দ্বীপ রাষ্ট্রে পৌঁছানোর পরে তাদের ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেনটাইনে থাকতে হবে। তারা শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডকে জানিয়েছে এই সময় কালীন কোন ধরনের অনুশীলনে অংশগ্রহণ করা যাবে না বরং হোটেলে একদম আইসোলেশনে কাটাতে হবে।

এসএলসি তাদের পক্ষ থেকে অনানুষ্ঠানিকভাবে এ তথ্য বাংলাদেশকে জানিয়েছে এবং ক্যান্ডিতে শুরু হতে যাওয়া এই সফরের আনুষ্ঠানিক সূচি এবং জৈব সুরক্ষার পরিকল্পনা এখনো জানাতে পারেনি।

বিসিবি’র দাবি তাদের পূর্বে এই ধারণা দেওয়া হয়েছিল যে টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে কোয়ারান্টাইন থাকা সময়কালে তাদের প্রশিক্ষণ এবং আন্ত-স্কোয়াড ম্যাচ খেলার সুযোগ থাকবে। তবে তাদের কোয়ারানটাইন শেষ করার আগে তাদের কোনও স্থানীয় দলের বিপক্ষে ম্যাচ খেলতে দেওয়া হবে না।

বিসিবি ২৭ সেপ্টেম্বর হাই পারফরম্যান্স স্কোয়াড নিয়ে শ্রীলঙ্কা যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। টেস্ট সিরিজের জন্য চূড়ান্ত স্কোয়াড তাদের আন্তঃ-স্কোয়াড খেলার পরে নির্ধারণ করা হবে। আর বাকিরা শ্রীলঙ্কার হাই পারফরম্যান্স স্কোয়াডের বিপক্ষে দু’টি চার-দিনের ম্যাচ এবং পাঁচটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে। যে টেস্টগুলি
বাংলাদেশ দল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলবে তা চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ।

বর্তমানে শ্রীলঙ্কার জাতীয় সুরক্ষা সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী পর্যটকদের সেখানে পৌঁছনোর পর কেবল তাদের হোটেলে আইসোলেশনে থাকতে হবে । এই কারনে  বাংলাদেশ দলের শ্রীলঙ্কা সফর সন্দেহজনক বলে মনে হচ্ছে।