ব্যক্তিগত অর্জন সমৃদ্ধ করলেন সৌম্য

0
547

আগের ম্যাচেই রান তাড়া করে হেরেছিলো বাংলাদেশ। সিরিজের শেষ ম্যাচে লক্ষ্যটা ছিল আরও কঠিন।ষ ১৯৪ রানের বড় লক্ষ্যের পাশাপাশি সিরিজ বাঁচানোর চাপটাও ছিল সাকিব-রিয়াদদের। সৌম্য সরকারের ফিফটি, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও শামীম হোসেনের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে সেই চ্যালেঞ্জ দুর্দান্ত ভাবেই উতরে গেছে বাংলাদেশ দল।

জিম্বাবুয়ের দেওয়া ১৯৪ রানের লক্ষ্য ৪ বল হাতে রেখেই ছুয়ে ফেলে বাংলাদেশ দল। শেষ দিকে ১৫ বলের হার না মানা ইনিংস খেলেন শামীম হোসেন পাটোয়ারী। ম্যাচ সেরা সৌম্যের ব্যাট থেকে আসে ৬৮ রান, সাকিব আল হাসান ১৫, আফিফ হোসেন ৫ বলে ১৪ ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৩৪ রানের ইনিংস খেলেন।

সৌম্য সরকারের ইনিংস জয়ের ভিত্তি তৈরি করে দিলেও জয়ের পেছনে সবার ইনিংসের গুরুত্ব ছিল তাৎপর্যপূর্ণ। ম্যাচ শেষে ব্যাটারদের সমন্বিত প্রচেষ্টার পাশাপাশি শামীম হোসেনের কথা বিশেষ ভাবে উল্লেখ করেছেন বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

ম্যাচ শেষে টাইগার অধিনায়ক বলেন, “অবশ্যই আমার মনে হয় ছেলেরা মাঠে তাদের শক্তি দেখিয়েছে, সবাই অবদান রেখেছে। যেভাবে সাকিব ও সৌম্য ব্যাট করেছে, আফিফ অবদান রেখেছে এবং শেষে শামীম ঝড়ের গতিতে খুব গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছে। সব মিলিয়ে এটা খুব ভালো ব্যাটিং প্রচেষ্টা ছিল।”

সৌম্য তার ফেসবুক পেইজ থেকে জানিয়েছে তিনি খুব খুশি কারণ এটি তার প্রথম ম্যান অফ দ্যা সিরিজ। দেশের বাইরে এই প্রথম তার এই অর্জন নিজের ব্যক্তিগত রেকর্ডের খাতা আরো সমৃদ্ধ করলেন তিনি।

বড় রান তাড়া করতে হলে জুটি গড়া ও স্ট্রাইক রোটেট খেলাকে গুরুত্বপূর্ণ বলে জানিয়েছেন রিয়াদ, “জিনিসটা হচ্ছে যখন আপনি বড় রান তাড়া করবেন, আপনার কিছু জুটি গড়তে হবে এবং স্ট্রাইক রোটেট করতে হবে। একই সঙ্গে আমরা চেষ্টা করেছি ডট বল কম খেলতে। প্রতি ওভারে বাউন্ডারি মারার চেষ্টা করেছি। এবং জুটি গড়ে যত গভীরে যাওয়া যায় সে চেষ্টা করেছি।”

সৌম্যের অলরাউন্ড পারফর্মেন্সে খুশি রিয়াদ বলেন, “সৌম্য একজন কার্যকরী অলরাউন্ডার। আমি যখন তাকে বল দেই, সে দুই উইকেট এনে দেয়। যখন দলের রান দরকার সে তখন দাঁড়িয়ে গেছে। কিছু রান করেছে। সবশেষে এটা ভালো ব্যাটিং প্রচেষ্টা ছিল।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৫ উইকেটে জয়ের পাশাপাশি সিরিজও জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। স্টার পারফর্মার ছিলো সৌম্য, ব্যাট হাতে ৬৮ রানের পাশাপাশি বল হাতে ১৯ রান দিয়ে ২ উইকেট পাওয়া সৌম্য সরকার ম্যাচ সেরার পাশাপাশি জিতেছেন সিরিজ সেরার পুরস্কারও।”