মন্ত্রী কে ঘুষ দেওয়ার চেষ্টায় নিষিদ্ধ হলেন শ্রীলংঙ্কার প্রাক্তন ক্রিকেট বিশ্লেষক। 

0
1428

ঘুষ দেওয়া নেওয়া এবং ম্যাচ ফিক্সিং এর প্রবনতা বেড়েই চলেছে ক্রিকেট আঙিনায়। এ যেনো নতুন বারবার সামনে আসছে এ জাতীয় ঘটনা। ক্রিকেটারদের পর এইবার ক্রিকেট বিশ্লেষক শ্রীলংঙ্কার জয়া সুন্দারা অভিযুক্ত হয়েছে। ২০১৯ সালে শ্রীলংঙ্কা একটি সফরের জন্য নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে একজন মন্ত্রীকে ঘুষ দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন তিনি।

আইসিসির দুর্নীতি দমন ট্রাইব্যুনাল আইসিসির দুর্নীতি বিরোধী কোড লঙ্ঘনের জন্য দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পরে শ্রীলঙ্কা প্রাক্তন ক্রিকেট পারফরম্যান্স বিশ্লেষক জয়াসুন্দারাকে সাত বছরের জন্য সমস্ত ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করেছে।

২০১৯ সালের জানুয়ারিতে জয়াসুন্দারা শ্রীলঙ্কার তৎকালীন ক্রীড়া মন্ত্রী হারিন ফার্নান্দোকে আন্তর্জাতিক ম্যাচের ফলাফল, অগ্রগতি, আচরণ বা অন্য কোনও দিককেই ভুলভাবে প্রভাবিত করার জন্য ঘুষ দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন।

ট্রাইব্যুনাল জয়াসুন্দারাকে দোষী বলে প্রমাণিত করেছে।

আর্টিকেল নং ২.১.৩ অনুযায়ী দেশের ক্রীড়া মন্ত্রীর কাছে ক্রিকেটে অবদান রাখার জন্য ঘুষ বা অন্যান্য পুরষ্কার প্রদান অথবা অন্যায়ভাবে আন্তর্জাতিক ফলাফলের, অগ্রগতি, আচরণ বা অন্য কোনও দিককে প্রভাবিত করে এমন আচরনের দায়ে তিনি অভিযুক্ত হয়েছেন।

আর্টিকেল নং ২.৪.৭ অনুযায়ী দুর্নীতি দমন কোডের অধীনে তার  আচরণের জন্য এসিইউ তদন্তকে বাধা দেওয়া বা বিলম্ব করা।

আইসিসির ম্যানেজার অ্যালেক্স মার্শাল এক বিবৃতিতে বলেছেন, “জয়সুন্দরার একজন মন্ত্রীকে ঘুষ দেওয়ার চেষ্টা গুরুতর অপরাধ।”আমরা আমাদের খেলাধুলায় দুর্নীতিবাজি আচরণকে সহ্য করব না এবং আমার দল জাতীয় আচরণ রোধে নিরলস হবে। এই নিষেধাজ্ঞাটি তাদের জন্য শিক্ষা যারা ভুল পথে প্রভাবিত না হয়।”

নিষেধাজ্ঞাটি ১১ই মে ২০১৯ থেকে কার্যকর করা হয়েছে, যখন তাকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছিল। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ক্রীড়ামন্ত্রী নিযুক্ত হওয়ার এক মাসেরও কম সময়ের মধ্যে ফার্নান্দো এসিইউর কাছে কথিত চেষ্টা করা ঘুষের কথা বলেছিলেন বলে জানা গেছে।

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের দীর্ঘদিনের কর্মচারী, জয়সুন্দরার বোর্ডের ব্রেইন সেন্টারে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি শ্রীলঙ্কার অনূর্ধ্ব -১৯ দলের সাথেও কাজ করেছিলেন এবং অতীতে পুরুষদের জাতীয় দলের সাথেও কাজ করেছিলেন।

শ্রীলংঙ্কান ক্রিকেটে সাম্প্রতিক সময়ে কিছু ঘটনা আছে যেই ঘটনা গুলো মোটেও শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের জন্য মঙ্গলজনক নয়। লংঙ্কান বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক অর্জুনা রানাতুঙ্গা তিনি নিজেও বলেছেন আমাদের ক্রিকেটের এই মূহুর্তে যেমন অবস্থা চলছে এইভাবে চলতে থাকলে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটের মতো নাজেহাল অবস্থা হবে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটের।