মেসির কান্নাভেজা টিস্যু বিক্রি হয়েছে সাড়ে ৮ কোটি টাকায়

0
7713

বার্সেলোনার পক্ষ থেকে দুদিন আগে জানিয়ে দেওয়া হয় লিওনেল মেসি আর থাকছেন না। কারণ, ছয়বারে বর্ষসেরা আর্জেন্টাইন মহাতারকার সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করতে পারছে না ক্লাবটি। কাতালানদের পক্ষে থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করে ফেললেও কদিন বিষয়টি নিয়ে একেবারেই নিশ্চুপ ছিলেন সর্বকালের অন্যতম সেরা এই ফুটবলার।

অবশেষে তিনি মুখ খুললেন। মেসি বিদায় জানালেন তার শৈশবের ক্লাবকে। যে ঠিকানার সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে। কাতালানদের সঙ্গে দীর্ঘ ও মধুর বন্ধন ছিন্ন হওয়া দুঃখে তিনি ভেঙে পড়লেন কান্নায়।

ক্যাম্প ন্যুকে শেষ বিদায় জানাতে সংবাদ সম্মেলনে হাজির হয়ে অঝোরে কেঁদেছিলেন বার্সেলোনার সর্বকালের সেরা সন্তান। ওই সময় চোখের পানি, নাকের পানি মুছতে স্ত্রী আন্তোনেলা রোকুজ্জি তার দিকে একটি টিস্যু বাড়িয়ে দেন। সেদিন ব্যবহারের পর মেসির ফেলে দেওয়া সেই টিস্যু সংগ্রহ করেন এক ব্যক্তি। পরে সেটি তুলেন নিলামে। নিলামে অবিশ্বাস্য দামে বিক্রি হলো মেসির কান্নাভেজা সেই টিস্যু!

গালফ টুডে’ জানায়, ন্যু ক্যাম্পকে বিদায় জানানোর দিন সংবাদ সম্মেলনে মেসির কান্নাভেজা সেই টিস্যুটি সংগ্রহ করে নিলামে তুলেন এক ব্যক্তি। আর নিলামে মেসির সেই টিস্যু ১ মিলিয়ন ডলারে কিনে নিয়েছে স্প্যানিশ এক ধনকুবের। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৮ কোটি ৪০ লক্ষ টাকার কাছাকাছি!

কেন এত চড়া দামে কিনেছিলেন মেসির চোখের পানি ভেজা এই টিস্যু? তার জবাবও দিয়েছেন সেই ব্যক্তি। টিস্যুটির ক্রয় করা স্প্যানিশ ধনকুবের দাবি করেছেন, টিস্যুতে মেসির জিনগত উপাদান আছে, যা দিয়ে পরবর্তীতে ক্লোন করে তার মতোই বিখ্যাত ফুটবলার পাওয়া সম্ভব।

যদিও টিস্যুটিতে সত্যিই লিও মেসির চোখের পানি আছে কিনা তা নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি।