১৫ রানের আক্ষেপ রিয়াদের

0
521

প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ জয়ের পর হোয়াইটওয়াশেই চোখ ছিল বাংলাদেশের‌। তবে চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে অল্প পুঁজি নিয়ে লড়াই করেও ৩ উইকেটে হেরে গেছে বাংলাদেশ। বাজে ব্যাটিংকেই হারের কারণ হিসেবে দেখছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আক্ষেপ আরও ১০-১৫ রান তুলতে না পারার।

পুরো সিরিজ জুড়েই ব্যাটিংয়ে ভুগেছে বাংলাদেশ দল, আগের ৩ ম্যাচে কোন না কোন ভাবে উতরে যেতে সক্ষম হলেও এদিন শেষ রক্ষা আর হয়নি। ১০৪ রানের পুঁজি নিয়ে শেষ পর্যন্ত লড়াই করলেও ৩ উইকেটে হেরে মাঠ ছাড়তে হয়েছে রিয়াদ বাহিনী কে, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ মনে করেন তারা উইকেট পুরোপুরি বুঝতে পারেননি।

শুরুতে ব্যাটিংয়ে নামা বাংলাদেশের শুরুটা মন্দ ছিল না, গুঞ্জন থাকলেও ছন্দহীন দুই ওপেনার সৌম্য সরকার ও নাঈম শেখের উপরেই আস্থা রেখেছিল বাংলাদেশ দল। তাদের দুজনের উদ্বোধনী জুটিতে আসে ২৬ রান, এরপর উইকেট না হারালেও সাকিব আল হাসান ও নাঈম শেখের অতি রক্ষণাত্মক ব্যাটিংয়ে চাপে পড়ে বাংলাদেশ দল।

তবে মন্থর ব্যাটিংয়েও জয়ের পুঁজি পাওয়া সম্ভব ছিল বাংলাদেশের, ৪৮/১ থেকে ৫৪/৫ এই ৬ রানের ব্যবধানে ৪ উইকেট হারিয়ে লড়াইয়ের পুঁজিটা আর পাওয়া হয়নি বাংলাদেশের। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের মতে ১২০ রান হলেই জয় পাওয়া সম্ভব হতো, কিন্তু বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল মোটে ১০৪ রানের।

ম্যাচ শেষে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেন, “উইকেট খুব ভালো পড়তে পারিনি আমরা। সম্ভবত ১২০ রানের উইকেট ছিল এটি। ১১৫ থেকে ১২০ রানের উইকেট ছিল। ১০-১৫ রানের ঘাটতি ছিল আমাদের। বোলাররা দারুণ করেছে, ১৯ ওভার পর্যন্ত টেনে নিয়ে গেছে ম্যাচ।”

উইকেটকে সবচেয়ে কঠিন বললেও ব্যাটারদের আরেকটু সতর্ক হওয়া উচিত ছিল বলেই মনে করেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তিনি আরও বলেন, “ব্যাটিং ইউনিট হিসেবে আমাদের আরেকটু সতর্ক ও সেন্সিবল হওয়া উচিত। আজকের উইকেট সম্ভবত সবচেয়ে কঠিন ছিল, এই সিরিজের ম্যাচগুলির মধ্যে।”

হার নিয়ে পড়ে না থেকে সামনের দিকেই তাকাচ্ছেন টাইগারদের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক, ব্যাটিংয়ে সর্বোচ্চ সুযোগটা কাজে লাগানোর তাগাদা তার। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেন, “যা হয়ে গেছে, সেখান থেকে আমরা কিছু পাব না। সামনে তাকাতে হবে আমাদের এবং ব্যাটিংয়ে সুযোগ সর্বোচ্চ কাজে লাগাতে হবে।”

আগামীকাল সিরিজের পঞ্চম ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ।