জাতীয় দলের ক্যাম্পে আবারো ইমরুল কায়েস

0
1156

সামনে শ্রীলংকার বিপক্ষে হোম সিরিজে মাঠে নামছে টাইগাররা। বাংলাদেশ দল যখন শ্রীলংকার বিপক্ষে তাদের মাটিতেই টেষ্টে ধুকছে সেই সময়ে বাংলাদেশের এই মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ওডিআই সিরিজ উপলক্ষে ছয় ক্রিকেটার বিসিবির ক্যাম্পে অনুশীলনের জন্য যোগ দিয়েছেন।

প্রাথমিক ২৩ সদস্যের বড় একটি অংশ শ্রীলংকা রয়েছে টেস্ট দলের সাথে। এই সিরিজ উপলক্ষে প্রাথমিক স্কোয়াডে দুই বছর পরে ডাক পেয়েছেন ইমরুল কায়েস। এছাড়াও চোট কাটিয়ে ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক। এছাড়াও আফিফ, সৌম্য সরকার, ও নাইম ছোট ছোট সশনে মিরপুরে অনুশীলন করেছেন।

অনেকেই হয়তো ইমরুল কায়েসের জন্য জাতীয় দলের দরজা বন্ধ ভেবে নিয়েছিলেন। এর মাঝে তিনি দারুণ হতাশায় কাটলেও একেবারে আশা ছেড়ে দেননি। সাধারণত উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন ইমরুল। কিন্তু দলের প্রয়োজনে বিভিন্ন পজিশনে তাকে ট্রাই করা হয়েছে। মিডল অর্ডারের শক্তি বাড়াতে তাকে খেলতে হতে পারে পাঁচ নম্বরে। ২০৩ বিশ্বকাপ এর ভাবনায় রয়েছেন ইমরুল কায়েস।

মাত্র দুই ইনিংসে খারাপ করার পর তাকে জাতীয় দল থেকে বাদ পরতে হয়েছিল। সর্বশেষ ৫ ইনিংসের ব্যাটিং পরিসংখ্যান যদি দেখি তিনি রান করেছেন ৭০+ গড়ে ৩০০ এর উপরে।

জাতীয় দলের প্রাথমিক স্কোয়াডে ডাক পেয়ে তিনি মানসিকভাবে বেশ উৎফুল্ল। তিনিকৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছেন নির্বাচক কমিটির প্রতি। তিনি বলেছেন, “জাতীয় দলের বাইরে থাকলে মানসিকভাবে খুব একটা ভালো অবস্থায় থাকেন না। এটা তার জন্য অনেক বড় একটা সুযোগ। তিনি আবার নিজেকে প্রস্তুত করতে চান, নিজের দুর্বল দিক কি রয়েছে সেগুলো নিয়ে কাজ করতে চান। আরো ভালোভাবে নিজের জায়গা পাকাপোক্ত করতে চান জাতীয় দলে। জাতীয় দলের বাইরে যখন থাকেন তখন অনেকটা আপসেট থাকেন। বাইরে বসে যখন জাতীয় দলের খেলা গুলো দেখেন তখন জাতীয় দলকে দারুন ভাবে মিস করেন।”

তিনি মনে করেন মাঝে মাঝে দলের বাইরে থাকা খেলোয়াড়দের জন্য ভালো। করন এটা তার জন্য দারুন এক শিক্ষার বিষয়। নিজের দূর্বল দিক কি ও কি ভুল রয়েছে তা খুঁজে বের করে নিজেকে আরো ভালো ভাবে প্রস্তুত করতে পারা যায়।

তিনি কখনোই মনে করেন না যে তিনি জাতীয় দলের বাইরে আছেন। তিনি দলের ড্রেসিংরুম খুব ইনজয় করেন। জাতীয় দল থেকে বাদ পড়লেও তিনি কখনও মনে করেন না যে তিনি আসলে দলের বাইরে আছেন। তিনি মনে করেন তিনি যে কোন সময়ে আবারো দলে ফিরে আসবেন।